ঢাকা ০৬:২২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

সারাদেশের সহিংসতার প্রতিবাদে রাণীশংকৈলে বিক্ষোভ ও মানব বন্ধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫৩:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১ ২১৩ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাজমুল হোসেন, চ্যানেল এ নিউজঃ
শারদীয় দুর্গাপূজায় কুমিল্লাসহ সারাদেশে নারকিয় সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে গণঅনশন, গণঅবস্থান, বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈল উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতা কর্মীগণ।
শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় পৌর শহরের পলাশ মোড়ে এই কর্মসূচীর আয়োজন করে হিন্দু র্ধমালম্বী গণ। এসময় গণঅবস্থান কর্মসূচীতে পার্শবর্তী হরিপুর উপজেলা কয়েক শত মানুষ সহ প্রায় ৩ হাজারের অধিক মানুষ অংশ গ্রহণ করেন রাস্তার দুইপাশে প্রায় দুই ঘন্টা ব্যাপী। এসময় গন অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও  সংরক্ষিত মহিলা আসনের  সাবেক সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সহদুল হক, পৌর মেয়র আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান,উপজেলা আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক তাজউদ্দীন আহমদ, আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আহমদ হোসেন বিল্পব, সাবেক অধ্যক্ষ তাজুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ছবি কান্ত দেব, সাধারণ সম্পাদক সাধন কুমার বসাক, প্রভাষক প্রশান্ত কুমার বসাক,হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অমল চন্দ্র রায়,হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রাণ গোবিন্দ সাহা বাচ্চু, উদিচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি প্রভাষক রেজাউল করিম সহ দিন্দু মহাজোট,দোকান কর্মচারী, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদের ইউনিয়ন ওয়ার্ড পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ সাম্প্রদায়িক হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন।
গনঅবস্থান শেষে একটি প্রতিবাদ মিশিল পৌর শহরের চাঁদনী সিনেমা হল পযন্ত এসে আবার মুক্তা সিনেমা, হয়ে শহরের হাফিজ মার্কেট থেকে ঘুরে পলাশ মোড়ে এসে শেষ হয়। এসময় বক্তারা বলেন বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার কোনো স্থান নেই। এইদেশ মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদের দেশ নয় এই দেশ হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকলের দেশ। থেকেই সাম্প্রদায়িক এবং উস্কানি মূলক কার্যকলাপ কে কঠিন হস্তে রুখে দিতে হবে বলে ব্যত্ত করেন বক্তরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সারাদেশের সহিংসতার প্রতিবাদে রাণীশংকৈলে বিক্ষোভ ও মানব বন্ধন

আপডেট সময় : ০২:৫৩:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

নাজমুল হোসেন, চ্যানেল এ নিউজঃ
শারদীয় দুর্গাপূজায় কুমিল্লাসহ সারাদেশে নারকিয় সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে গণঅনশন, গণঅবস্থান, বিক্ষোভ মিছিল করেছেন ঠাকুরগাঁও রানীশংকৈল উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতা কর্মীগণ।
শনিবার (২৩ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় পৌর শহরের পলাশ মোড়ে এই কর্মসূচীর আয়োজন করে হিন্দু র্ধমালম্বী গণ। এসময় গণঅবস্থান কর্মসূচীতে পার্শবর্তী হরিপুর উপজেলা কয়েক শত মানুষ সহ প্রায় ৩ হাজারের অধিক মানুষ অংশ গ্রহণ করেন রাস্তার দুইপাশে প্রায় দুই ঘন্টা ব্যাপী। এসময় গন অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও  সংরক্ষিত মহিলা আসনের  সাবেক সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সহদুল হক, পৌর মেয়র আলহাজ্ব মোস্তাফিজুর রহমান,উপজেলা আওয়ামীগের সাধারণ সম্পাদক তাজউদ্দীন আহমদ, আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আহমদ হোসেন বিল্পব, সাবেক অধ্যক্ষ তাজুল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান, পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ছবি কান্ত দেব, সাধারণ সম্পাদক সাধন কুমার বসাক, প্রভাষক প্রশান্ত কুমার বসাক,হোসেনগাঁও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান অমল চন্দ্র রায়,হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রাণ গোবিন্দ সাহা বাচ্চু, উদিচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি প্রভাষক রেজাউল করিম সহ দিন্দু মহাজোট,দোকান কর্মচারী, হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদের ইউনিয়ন ওয়ার্ড পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ সাম্প্রদায়িক হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন।
গনঅবস্থান শেষে একটি প্রতিবাদ মিশিল পৌর শহরের চাঁদনী সিনেমা হল পযন্ত এসে আবার মুক্তা সিনেমা, হয়ে শহরের হাফিজ মার্কেট থেকে ঘুরে পলাশ মোড়ে এসে শেষ হয়। এসময় বক্তারা বলেন বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতার কোনো স্থান নেই। এইদেশ মৌলবাদ ও জঙ্গিবাদের দেশ নয় এই দেশ হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সকলের দেশ। থেকেই সাম্প্রদায়িক এবং উস্কানি মূলক কার্যকলাপ কে কঠিন হস্তে রুখে দিতে হবে বলে ব্যত্ত করেন বক্তরা।