ঢাকা ০২:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুল বাগানের সন্ধান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৫৪:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২ ১৬ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুল বাগানের সন্ধান

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুলের একটি বাগানের সন্ধান পাওয়া গেছে। রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (আরডিএ) তাদের বাগানে চাষ করেছিল এই ফুল। সুন্দর এ ফুলের রস থেকেই তৈরি হয় আফিম, হেরোইন ও মরফিনের মত মাদকদ্রব্য। বাংলাদেশের আইনে পপি ফুল চাষ নিষিদ্ধ। আরডিএ বলছে, না জেনেই এই ফুল গাছ লাগানো হয়েছিল।
সোমবার আরডিএথর ফুল বাগানে শত শত পপি ফুলের গাছ দেখা গেছে। কোন গাছে ফুল ধরে ছিল, আবার কোন গাছের ফুলের পাপড়ি ঝরে ফল হয়ে ছিল। পাকা ফলের শুকনো কিছু গাছ কাটা অবস্থাতেও বাগানে দেখা গেছে। বাগান ছাড়াও আরডিএ ভবনের পাশে সৌন্দর্য্যবর্ধনের জন্য এই পপি ফুলের গাছ দেখা গেছে।
এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে আরডিএথর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হায়াত মোঃ রহমাতুল্লাহথর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তাৎক্ষণিকভাবে বাগান থেকে পপি ফুলের গাছগুলো ধ্বংস করার জন্য নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, পপি ফুলের গাছ আমি চিনিই না। না জেনে হয়ত লাগানো হয়েছিল।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রাজশাহী উপ-অঞ্চলের উপপরিচালক মোহাম্মদ লুৎফর রহমান বলেন, পপি গাছ দুই ধরনের হয়। এর একটি থেকে মাদক হয়। তবে বাংলাদেশের আইনে সব ধরনের পপি ফুলই নিষিদ্ধ। তাও না বুঝে ভুল করে কেউ কেউ সৌন্দর্য্যবর্ধনের জন্য বাগানে এই ফুলগাছ লাগায়। আরডিএ নিজেরাই বাগান ভেঙে দিচ্ছে। তা না হলে আমরা গিয়ে ভাঙতাম।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুল বাগানের সন্ধান

আপডেট সময় : ০৩:৫৪:১৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২২ মার্চ ২০২২

রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুল বাগানের সন্ধান

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
রাজশাহীতে নিষিদ্ধ পপি ফুলের একটি বাগানের সন্ধান পাওয়া গেছে। রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (আরডিএ) তাদের বাগানে চাষ করেছিল এই ফুল। সুন্দর এ ফুলের রস থেকেই তৈরি হয় আফিম, হেরোইন ও মরফিনের মত মাদকদ্রব্য। বাংলাদেশের আইনে পপি ফুল চাষ নিষিদ্ধ। আরডিএ বলছে, না জেনেই এই ফুল গাছ লাগানো হয়েছিল।
সোমবার আরডিএথর ফুল বাগানে শত শত পপি ফুলের গাছ দেখা গেছে। কোন গাছে ফুল ধরে ছিল, আবার কোন গাছের ফুলের পাপড়ি ঝরে ফল হয়ে ছিল। পাকা ফলের শুকনো কিছু গাছ কাটা অবস্থাতেও বাগানে দেখা গেছে। বাগান ছাড়াও আরডিএ ভবনের পাশে সৌন্দর্য্যবর্ধনের জন্য এই পপি ফুলের গাছ দেখা গেছে।
এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে আরডিএথর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হায়াত মোঃ রহমাতুল্লাহথর দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তাৎক্ষণিকভাবে বাগান থেকে পপি ফুলের গাছগুলো ধ্বংস করার জন্য নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, পপি ফুলের গাছ আমি চিনিই না। না জেনে হয়ত লাগানো হয়েছিল।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রাজশাহী উপ-অঞ্চলের উপপরিচালক মোহাম্মদ লুৎফর রহমান বলেন, পপি গাছ দুই ধরনের হয়। এর একটি থেকে মাদক হয়। তবে বাংলাদেশের আইনে সব ধরনের পপি ফুলই নিষিদ্ধ। তাও না বুঝে ভুল করে কেউ কেউ সৌন্দর্য্যবর্ধনের জন্য বাগানে এই ফুলগাছ লাগায়। আরডিএ নিজেরাই বাগান ভেঙে দিচ্ছে। তা না হলে আমরা গিয়ে ভাঙতাম।