ঢাকা ০৬:৪৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

রাঙামাটিতে বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১ ১৫১ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মহুয়া জান্নাত মনি, রাঙামাটি প্রতিনিধিঃ
আয়কর ও ভ্যাট এর সকল প্রকার তথ্য, সেবা ও পরামর্শ দেওয়ার লক্ষ্যে নির্ভরযোগ প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাঙামাটিতে প্রথমবারের মত বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।
শুক্রবার বিকালে রাঙামাটি শহরের মসজিদ মার্কেটের ২য় তলায় ৩৯নং দোকানে এ বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের ফিতা ও কেক কেটে শুভ উদ্বোধন করেন, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। পরে এ উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় সভায় বিশেষ অথিতি হিসেবে, রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান মহসিন রোমান, রাঙামাটি জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এড. কল্যাণ মিত্র চৌধুরী, রাঙামাটি জেলা আইনজীবি সমিতির সদস্য ও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট শফিউল আলম মিয়া, রাঙামাটি জর্জ কোর্টের এ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম বাবুল, বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্যাক্স বার এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মোহাম্মদ ইব্রাহিম (সিএ(সিসি) ইনকাম ট্যাক্স অনুশলিনকারী) সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় বক্তারা বলেন, আমাদের দেশে ভ্যাট আইন চালু হয়েছিল ১৯৯১ সালে। তখন ব্যবসা-বাণিজ্যে গতি মাত্র শুরু হয়েছিল, তবে বর্তমান সময়ের মতো ডিজিটাল গতি ছিল না। তখন ভ্যাট আইনটি চালু করার মূল উদ্দেশ্য ছিল অর্থনীতির প্রবাহে গতি আনার জন্য একটি কৌশলগত পরিকল্পনার অংশ। অর্থনীতিতে গতি ঠিকই এলো। তবে ভ্যাটে অভ্যস্ত করার চ্যালেঞ্জও ছিল ব্যাপক। কালের পরিক্রমায় এখন ভ্যাট সম্পর্কে ধারণা বেড়েছে!
আয়কর ও ভ্যাট ট্যাক্স বর্তমানে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অন্যান্য পেশাজীবি মানুষের অন্যতম সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত। কারো আয়কর ও ভ্যাট ট্যাক্সথর কোন ধরনের সমস্যা স্মুখীন হলে রাঙামাটিতে কোন ধরনের সেবা না তাকায় আইনি সেবার জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম যেতে হতো। কিন্তু এখন আর ঢাকা চট্টগ্রাম যেতে হবে না। বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই রাঙামাটিতে বসেই আইনি সেবাসহ সকল ধরনের সেবা পাওযা যাবে। এজন্য বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধারকে রাঙামাটি বাসীর পক্ষথেকে পৌর মেয়র ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্যাক্স বার এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মোহাম্মদ ইব্রাহিম জানান, আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রদান না করলে নানা ধরনেরর সমস্যা হয়ে থাকে। প্রতি অর্থ বছর শেষে যে আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স দিতে হচ্ছে বাংলাদেশে অনেকেই আছেন। কিন্তু বহু মানুষ আছেন যারা রীতিমতো হিমসিম খান। তথ্যের অভাবে ভুল করে থাকেন, নানা ঝামেলায় পরেন। যারা নতুন আয়কর দিচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রেই এটি বেশি হয়ে থাকে। বিশেষ করে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলা জনগণ প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাস করায় সমস্যার সম্মুখীন বেশি হতে হয়। রাঙামাটিতে আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স এর কোন প্রতিষ্ঠান না থাকায় ব্যবসায়ীসহ নানা পেশার মানুষের সমস্যা সৃষ্টি হয়। আর এসব সমস্যা সমাধানরে জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম গিয়ে বিভিন্ন আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রতিষ্ঠান হতে সেবা গ্রহন করতে হয়। এতে করে সময়, টাকা-পয়সা অতিরিক্ত খরচ হয়সহ প্রচুর প্ররিশ্রম হয়। তাই সবকিছু বিবেচনা করে রাঙামাটি আমরা স্বল্প খরচে আমরা আয়কর ও ভ্যাট এর সকল প্রকার তথ্য, সেবা ও পরামর্শ দেওয়ার লক্ষ্যে নির্ভরযোগ প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাঙামাটিতে বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু করি।
তিনি আরো জানান, আমরা ব্যবসায়ী মহলসহ আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স দাতাদের জন্য স্বল্প খরচে আয়করের আওতায় কে পরেন, কত আয় হলে কর দিতে হয়, কিভাবে কর দেবেন, কোন ক্ষেত্রে করে ছাড়ের সুবিধা পাবেন, অভিযোগ থাকলে কোথায় যাবেন, আইনি মোকাবেলাসহ বিভিন্ন আইনি সেবা ও বিভিন্ন পরামর্শ দাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সবসমসয় সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সেবা প্রদান করে যাবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

রাঙামাটিতে বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন

আপডেট সময় : ০৯:০৬:১৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১

মহুয়া জান্নাত মনি, রাঙামাটি প্রতিনিধিঃ
আয়কর ও ভ্যাট এর সকল প্রকার তথ্য, সেবা ও পরামর্শ দেওয়ার লক্ষ্যে নির্ভরযোগ প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাঙামাটিতে প্রথমবারের মত বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে।
শুক্রবার বিকালে রাঙামাটি শহরের মসজিদ মার্কেটের ২য় তলায় ৩৯নং দোকানে এ বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের ফিতা ও কেক কেটে শুভ উদ্বোধন করেন, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী। পরে এ উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় সভায় বিশেষ অথিতি হিসেবে, রাঙামাটি সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুজ্জামান মহসিন রোমান, রাঙামাটি জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এড. কল্যাণ মিত্র চৌধুরী, রাঙামাটি জেলা আইনজীবি সমিতির সদস্য ও জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এ্যাডভোকেট শফিউল আলম মিয়া, রাঙামাটি জর্জ কোর্টের এ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম বাবুল, বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্যাক্স বার এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মোহাম্মদ ইব্রাহিম (সিএ(সিসি) ইনকাম ট্যাক্স অনুশলিনকারী) সহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় বক্তারা বলেন, আমাদের দেশে ভ্যাট আইন চালু হয়েছিল ১৯৯১ সালে। তখন ব্যবসা-বাণিজ্যে গতি মাত্র শুরু হয়েছিল, তবে বর্তমান সময়ের মতো ডিজিটাল গতি ছিল না। তখন ভ্যাট আইনটি চালু করার মূল উদ্দেশ্য ছিল অর্থনীতির প্রবাহে গতি আনার জন্য একটি কৌশলগত পরিকল্পনার অংশ। অর্থনীতিতে গতি ঠিকই এলো। তবে ভ্যাটে অভ্যস্ত করার চ্যালেঞ্জও ছিল ব্যাপক। কালের পরিক্রমায় এখন ভ্যাট সম্পর্কে ধারণা বেড়েছে!
আয়কর ও ভ্যাট ট্যাক্স বর্তমানে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ অন্যান্য পেশাজীবি মানুষের অন্যতম সমস্যা হিসেবে চিহ্নিত। কারো আয়কর ও ভ্যাট ট্যাক্সথর কোন ধরনের সমস্যা স্মুখীন হলে রাঙামাটিতে কোন ধরনের সেবা না তাকায় আইনি সেবার জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম যেতে হতো। কিন্তু এখন আর ঢাকা চট্টগ্রাম যেতে হবে না। বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমেই রাঙামাটিতে বসেই আইনি সেবাসহ সকল ধরনের সেবা পাওযা যাবে। এজন্য বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধারকে রাঙামাটি বাসীর পক্ষথেকে পৌর মেয়র ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ও ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্যাক্স বার এ্যাসোসিয়েশনের সদস্য মোহাম্মদ ইব্রাহিম জানান, আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রদান না করলে নানা ধরনেরর সমস্যা হয়ে থাকে। প্রতি অর্থ বছর শেষে যে আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স দিতে হচ্ছে বাংলাদেশে অনেকেই আছেন। কিন্তু বহু মানুষ আছেন যারা রীতিমতো হিমসিম খান। তথ্যের অভাবে ভুল করে থাকেন, নানা ঝামেলায় পরেন। যারা নতুন আয়কর দিচ্ছেন তাদের ক্ষেত্রেই এটি বেশি হয়ে থাকে। বিশেষ করে পার্বত্য চট্টগ্রামের তিন জেলা জনগণ প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাস করায় সমস্যার সম্মুখীন বেশি হতে হয়। রাঙামাটিতে আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স এর কোন প্রতিষ্ঠান না থাকায় ব্যবসায়ীসহ নানা পেশার মানুষের সমস্যা সৃষ্টি হয়। আর এসব সমস্যা সমাধানরে জন্য ঢাকা-চট্টগ্রাম গিয়ে বিভিন্ন আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স প্রতিষ্ঠান হতে সেবা গ্রহন করতে হয়। এতে করে সময়, টাকা-পয়সা অতিরিক্ত খরচ হয়সহ প্রচুর প্ররিশ্রম হয়। তাই সবকিছু বিবেচনা করে রাঙামাটি আমরা স্বল্প খরচে আমরা আয়কর ও ভ্যাট এর সকল প্রকার তথ্য, সেবা ও পরামর্শ দেওয়ার লক্ষ্যে নির্ভরযোগ প্রতিষ্ঠান হিসেবে রাঙামাটিতে বিডি ভ্যাট ট্যাক্স সলিউশন প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু করি।
তিনি আরো জানান, আমরা ব্যবসায়ী মহলসহ আয়কর, ভ্যাট ও ট্যাক্স দাতাদের জন্য স্বল্প খরচে আয়করের আওতায় কে পরেন, কত আয় হলে কর দিতে হয়, কিভাবে কর দেবেন, কোন ক্ষেত্রে করে ছাড়ের সুবিধা পাবেন, অভিযোগ থাকলে কোথায় যাবেন, আইনি মোকাবেলাসহ বিভিন্ন আইনি সেবা ও বিভিন্ন পরামর্শ দাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সবসমসয় সর্বোচ্চ সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সেবা প্রদান করে যাবো।