ঢাকা ০৫:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৩৭:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ মার্চ ২০২২ ১৯ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন। রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ বন্ধ থাকার পর ফের চালু হলো গাইনী বিভাগের অপারেশন থিয়েটার।

সরকারি হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটার দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হওয়ায় এই উপজেলার মানুষের ভোগান্তি অনেকটা লাঘব হবে। একই সাথে বিনামূল্যে যাবতীয় সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবেন রোগীরা।

আজ রোববার (১৩ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টায় সময় মোহনপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের রুমা বেগম নামের এক নারীর (সন্তান প্রসব) অপাশেন করা করা হয়েছে। মা ও মেয়ে সুস্থ্য রয়েছেন। এই অপারেশন করেছেন গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার খাদিজা খাতুন। সহযোগিতা করেন ডাক্তার ফাইরুজ পারভিন তানিয়া,ডাক্তার কাকলী ও আলী চৌধুরী।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, অপারেশন থিয়েটারটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রাখা হয়। ফলে উপজেলার বৃহৎ জনগোষ্ঠী দীর্ঘদিন স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত থাকে। বিশেষ করে গরীব মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়ে।

সরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারটি পুনরায় চালু হওয়ায় উপজেলার মানুষ উপকৃত হবে বলে জানান, রুমা বেগমের স্বামি মো. দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার আমার স্ত্রী রুমার সমস্যা হলে মোহনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা আগ্রহসহকারে তাকে দেখেন। শনিবার স্ত্রী রুমাকে মোহনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০ টায় সময় অপারেশন করা হয়েছে। মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়েছে। মা-মেয়ে দুজনই সুস্থ্য রয়েছেন। বিনা খরচে অপারেশন করতে পারায় তিনি অত্যন্ত খুশি।

দীর্ঘ এক যুগ বন্ধ থাকার পর অপারেশনে সহযোগিতা করেন মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ আরিফুল কবীর। তিনি বলেন, হাসপাতালের আউটডোর স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের পাশাপাশি আপাতত সপ্তাহে ২/৩ দিন অপারেশ থিয়েটারের কার্যক্রম চলমান থাকবে। গাইনোকোলজিল্যাল (সন্তান প্রসব) অপাশেন করার পাশাপাশি অর্থপেডিক বিভাগের ছোটখাট অপারেশনও করা হবে। পরবর্তীতে আরো জনবল পেলে এটি প্রতিদিন চালু রাখা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন

আপডেট সময় : ১২:৩৭:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ মার্চ ২০২২

মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ পর চালু হলো অপারেশন। রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দীর্ঘ এক যুগ বন্ধ থাকার পর ফের চালু হলো গাইনী বিভাগের অপারেশন থিয়েটার।

সরকারি হাসপাতালে অপারেশন থিয়েটার দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় চালু হওয়ায় এই উপজেলার মানুষের ভোগান্তি অনেকটা লাঘব হবে। একই সাথে বিনামূল্যে যাবতীয় সরকারি সুযোগ-সুবিধা পাবেন রোগীরা।

আজ রোববার (১৩ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০ টায় সময় মোহনপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের রুমা বেগম নামের এক নারীর (সন্তান প্রসব) অপাশেন করা করা হয়েছে। মা ও মেয়ে সুস্থ্য রয়েছেন। এই অপারেশন করেছেন গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার খাদিজা খাতুন। সহযোগিতা করেন ডাক্তার ফাইরুজ পারভিন তানিয়া,ডাক্তার কাকলী ও আলী চৌধুরী।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, অপারেশন থিয়েটারটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রাখা হয়। ফলে উপজেলার বৃহৎ জনগোষ্ঠী দীর্ঘদিন স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত থাকে। বিশেষ করে গরীব মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়ে।

সরকারি হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারটি পুনরায় চালু হওয়ায় উপজেলার মানুষ উপকৃত হবে বলে জানান, রুমা বেগমের স্বামি মো. দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার আমার স্ত্রী রুমার সমস্যা হলে মোহনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা আগ্রহসহকারে তাকে দেখেন। শনিবার স্ত্রী রুমাকে মোহনপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০ টায় সময় অপারেশন করা হয়েছে। মেয়ে সন্তানের জন্ম হয়েছে। মা-মেয়ে দুজনই সুস্থ্য রয়েছেন। বিনা খরচে অপারেশন করতে পারায় তিনি অত্যন্ত খুশি।

দীর্ঘ এক যুগ বন্ধ থাকার পর অপারেশনে সহযোগিতা করেন মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোঃ আরিফুল কবীর। তিনি বলেন, হাসপাতালের আউটডোর স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের পাশাপাশি আপাতত সপ্তাহে ২/৩ দিন অপারেশ থিয়েটারের কার্যক্রম চলমান থাকবে। গাইনোকোলজিল্যাল (সন্তান প্রসব) অপাশেন করার পাশাপাশি অর্থপেডিক বিভাগের ছোটখাট অপারেশনও করা হবে। পরবর্তীতে আরো জনবল পেলে এটি প্রতিদিন চালু রাখা হবে।