ঢাকা ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২০:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২ ২১ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে
পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

রাজশাহী ব্যুরো:
মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে
পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম বলেছেন, পরিকল্পনা মাফিক কাজ করলে মানুষ অভিষ্ট্য লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে। কোনো প্রতিকূলতা বাঁধা হতে পারে না।

তিনি বলেন, যে বরেন্দ্র অঞ্চলে এক সময় কোনো ফসল হতো না, আজ সেখানে ফলের বাগান হচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের চাষাবাদ হচ্ছে। সেখানকার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। বরেন্দ্র অঞ্চলের পরিবেশ বদলেছে। মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে পারেন বলে জানান,পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় সৃজিত বাগানে সম্পৃক্ত উপকারভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করলে যে উন্নতি করা যায় তার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার দূরদর্শী পরিকল্পনার কারণে আজ বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। আমাদের আগে অনেক দেশ স্বাধীন হয়েছে কিন্তু তা করে দেখাতে পারেনি। শেখ হাসিনার পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করলে উন্নতি হবেই। শাহরিয়ার আলম বলেন, আমাদের মাটি সীমিত, আমাদের খনিজ সম্পদ সীমিত, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মতো আমাদের তেল-গ্যাস নেই, খনিজ সম্পদ নেই। কিন্তু আমাদের আছে উর্বর ভূমি। ছাগলে না খেলে, মানুষে না কাঁটলে যে মাটিতে বীজ ফেলে রাখলেই গাছ হয়।

এসময় তিনি বনায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, পরিবেশ কে ঠিক রাখতে হলে বনায়ন করতে হবে। ১৯৯৬ সালে প্রথমবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বনায়ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল। এখন আরও সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। নতুন করে রাস্তা তৈরি হচ্ছে। রাস্তার পুরনো গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে। সুতরাং নতুন করে গাছ লাগানোর সুযোগ বাড়ছে।

তিনি উপকোরভোগীদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের দেখে এখন অন্যরা অনুপ্রাণিত হবে। এসময় প্রতিমন্ত্রী সামাজিক বনায়নে ভূমিকা রাখার জন্য বন বিভাগের কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে সকলকে সামাজিক বনায়নে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

পরে প্রতিমন্ত্রী বাঘা ও চারঘাট উপজেলার সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় সৃজিত বাগানে সম্পৃক্ত ১১৯ জন উপকারভোগীর হাতে ৫০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

উপকারভোগীদের মধ্যে ৮১ জন পুরুষ এবং ৩৮ জন মহিলা। উপকারভোগীরা এসময় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাড. মোঃ লায়েব উদ্দীন লাভলু, রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ রফিকুজ্জামান শাহ্, বগুড়া সামাজিক বনাঞ্চলের বন সংরক্ষক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। উপজেলা প্রশাসন ও বাঘা সামাজিক বন বিভাগ যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

আপডেট সময় : ০৪:২০:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২

মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে
পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

রাজশাহী ব্যুরো:
মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে
পারে- পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার আলম বলেছেন, পরিকল্পনা মাফিক কাজ করলে মানুষ অভিষ্ট্য লক্ষ্যে পৌঁছতে পারে। কোনো প্রতিকূলতা বাঁধা হতে পারে না।

তিনি বলেন, যে বরেন্দ্র অঞ্চলে এক সময় কোনো ফসল হতো না, আজ সেখানে ফলের বাগান হচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের চাষাবাদ হচ্ছে। সেখানকার মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে। বরেন্দ্র অঞ্চলের পরিবেশ বদলেছে। মানুষ চেষ্টা করলে পরিবেশ বদলে দিতে পারেন বলে জানান,পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় সৃজিত বাগানে সম্পৃক্ত উপকারভোগীদের মাঝে লভ্যাংশের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করলে যে উন্নতি করা যায় তার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার দূরদর্শী পরিকল্পনার কারণে আজ বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। আমাদের আগে অনেক দেশ স্বাধীন হয়েছে কিন্তু তা করে দেখাতে পারেনি। শেখ হাসিনার পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করলে উন্নতি হবেই। শাহরিয়ার আলম বলেন, আমাদের মাটি সীমিত, আমাদের খনিজ সম্পদ সীমিত, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর মতো আমাদের তেল-গ্যাস নেই, খনিজ সম্পদ নেই। কিন্তু আমাদের আছে উর্বর ভূমি। ছাগলে না খেলে, মানুষে না কাঁটলে যে মাটিতে বীজ ফেলে রাখলেই গাছ হয়।

এসময় তিনি বনায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, পরিবেশ কে ঠিক রাখতে হলে বনায়ন করতে হবে। ১৯৯৬ সালে প্রথমবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর বনায়ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল। এখন আরও সুযোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। নতুন করে রাস্তা তৈরি হচ্ছে। রাস্তার পুরনো গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে। সুতরাং নতুন করে গাছ লাগানোর সুযোগ বাড়ছে।

তিনি উপকোরভোগীদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের দেখে এখন অন্যরা অনুপ্রাণিত হবে। এসময় প্রতিমন্ত্রী সামাজিক বনায়নে ভূমিকা রাখার জন্য বন বিভাগের কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে সকলকে সামাজিক বনায়নে সহযোগিতার আহ্বান জানান।

পরে প্রতিমন্ত্রী বাঘা ও চারঘাট উপজেলার সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আওতায় সৃজিত বাগানে সম্পৃক্ত ১১৯ জন উপকারভোগীর হাতে ৫০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

উপকারভোগীদের মধ্যে ৮১ জন পুরুষ এবং ৩৮ জন মহিলা। উপকারভোগীরা এসময় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাড. মোঃ লায়েব উদ্দীন লাভলু, রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মোঃ রফিকুজ্জামান শাহ্, বগুড়া সামাজিক বনাঞ্চলের বন সংরক্ষক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন। উপজেলা প্রশাসন ও বাঘা সামাজিক বন বিভাগ যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।