ঢাকা ১০:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে তিন বখাটের দশ বছর করে আটকাদেশ!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১৩:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪ ১০৭ বার পড়া হয়েছে

Collected

আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে তিন বখাটের দশ বছর করে আটকাদেশ!

বিশেষ প্রতিনিধি, নাটোরঃ
নাটোরের বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে ১৭ বছরের আকাশ ইসলাম, ১৬ বছরের তুজাম দেওয়ান ও ১৬ বছর বয়সী রানা আহমেদ নামে ৩ কিশোরকে দশ বছর করে আটকাদেশে দিয়েছে আদালত। সোমবার ২৯ এপ্রিল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নাটোরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম এই আদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত আকাশ ইসলাম জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার নগর ইউনিয়নের মৎসজীবি পাড়ার মৃত জহুরুল ইসলামের ছেলে, তুজাম দেওয়ান একই এলাকার সেকেন্দার আলীর ছেলে এবং রানা আহমেদ শাহিদ আলীর ছেলে।

নাটোর জজ আদালতের স্পেশাল পিপি আনিসুর রহমান জানান, ২০২০ সালের ২০ মার্চ দুপুরে বড়াইগ্রাম উপজেলার রাজেন্দ্রপুর গ্রামের একটি খালের পাড় দিয়ে পায়ে হেটে বাড়ীতে ফিরছিল প্রতিবন্ধী ওই যুবতী। এ সময় খালের পাশের একটি গাছের নিচে বসে তাস খেলছিল স্থানীয় তিন বখাটে কিশোর আকাশ ইসলাম, তুজাম দেওয়ান ও রানা আহমেদ। প্রতিবন্ধী যুবতীকে একা যেতে দেখে তাকে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। এ সময় ওই যুবতীর চিৎকার শুনতে পেয়ে পাশের জমিতে কাজ করা শ্রমিকরা এগেিয় এলে কিশোর ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ওই যুবতীকে উদ্ধার করে তার বাড়ীতে নিয়ে যায়। ঘটনাটি শুনে প্রতিবন্ধী যুবতীর ভাই সুমন আলী বাদী হয়ে ওই তিনজনকে অভিযুক্ত করে বড়াইগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেন। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে। দীর্ঘ ৪ বছর মামলার স্বাক্ষ্য প্রমান গ্রহণ শেষে আদালতের বিচারক অভিযুক্তদের ১০ বছর করে আটকাদেশ দেন।

রায় ঘোষনার সময় অভিযুক্তরা আদালতে উপস্থিত ছিল বলেও জানান অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে তিন বখাটের দশ বছর করে আটকাদেশ!

আপডেট সময় : ০৯:১৩:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪

বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে তিন বখাটের দশ বছর করে আটকাদেশ!

বিশেষ প্রতিনিধি, নাটোরঃ
নাটোরের বড়াইগ্রামে প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণের দায়ে ১৭ বছরের আকাশ ইসলাম, ১৬ বছরের তুজাম দেওয়ান ও ১৬ বছর বয়সী রানা আহমেদ নামে ৩ কিশোরকে দশ বছর করে আটকাদেশে দিয়েছে আদালত। সোমবার ২৯ এপ্রিল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নাটোরের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুহাম্মদ আব্দুর রহিম এই আদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত আকাশ ইসলাম জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার নগর ইউনিয়নের মৎসজীবি পাড়ার মৃত জহুরুল ইসলামের ছেলে, তুজাম দেওয়ান একই এলাকার সেকেন্দার আলীর ছেলে এবং রানা আহমেদ শাহিদ আলীর ছেলে।

নাটোর জজ আদালতের স্পেশাল পিপি আনিসুর রহমান জানান, ২০২০ সালের ২০ মার্চ দুপুরে বড়াইগ্রাম উপজেলার রাজেন্দ্রপুর গ্রামের একটি খালের পাড় দিয়ে পায়ে হেটে বাড়ীতে ফিরছিল প্রতিবন্ধী ওই যুবতী। এ সময় খালের পাশের একটি গাছের নিচে বসে তাস খেলছিল স্থানীয় তিন বখাটে কিশোর আকাশ ইসলাম, তুজাম দেওয়ান ও রানা আহমেদ। প্রতিবন্ধী যুবতীকে একা যেতে দেখে তাকে উঠিয়ে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। এ সময় ওই যুবতীর চিৎকার শুনতে পেয়ে পাশের জমিতে কাজ করা শ্রমিকরা এগেিয় এলে কিশোর ধর্ষকরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ওই যুবতীকে উদ্ধার করে তার বাড়ীতে নিয়ে যায়। ঘটনাটি শুনে প্রতিবন্ধী যুবতীর ভাই সুমন আলী বাদী হয়ে ওই তিনজনকে অভিযুক্ত করে বড়াইগ্রাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেন। পরে পুলিশ তদন্ত শেষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে। দীর্ঘ ৪ বছর মামলার স্বাক্ষ্য প্রমান গ্রহণ শেষে আদালতের বিচারক অভিযুক্তদের ১০ বছর করে আটকাদেশ দেন।

রায় ঘোষনার সময় অভিযুক্তরা আদালতে উপস্থিত ছিল বলেও জানান অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান।