ঢাকা ০২:০৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নাটোরে ৪টি চোরাই মোটর সাইকেল সহ চোর চক্রের ৩ সদস্য আটক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৫৩:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২১ ৭৬ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে নুর ইসলাম (২৮), রাকিব হাসান (৩০) ও তুহিন পাগলা (৩০) নামে আন্তঃজেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করা সহ ৪টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করেছে র‍্যাব। চক্রটি অনলাইনে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করে ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সির মাধ্যমে চোরাই মোটর সাইকেল বিক্রি করে আসছিল। সোমবার একটি ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সিতে আন্তঃজেলা চোরচক্রের কতিপয় সদস্য পার্সেলের মাধ্যমে চোরাই মোটরসাইকেল বুকিং দিতে গেলে বিষয়টি জানতে পারে র‍্যাব-৫। ওই খবরের ভিত্তিতে র‍্যাব-৫ এর একটি দল সোমবার (২০ ডিসেম্বর) রাতভর পাবনা জেলার চাটমোহর এবং নাটোর জেলার গুরুদাসপুর ও সদর উপজেলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোর চক্রের ওই তিন সদস্যকে আটক সহ চোরাই মোটর সাইকেলগুলি উদ্ধার করে।
মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) কোম্পানি কমান্ডার এর কার্যালয়ে দুপুরে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে র‍্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন এই তথ্য জানান।
কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, সিপিসি-২, নাটোর ক্যাম্প, র‍্যাব-৫, রাজশাহীর একটি অপারেশন দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, নাটোর জেলার সদর থানাধীন একটি ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সিতে আন্তঃজেলা চোরচক্রের কতিপয় সদস্য পার্সেলের মাধ্যমে চোরাই মোটরসাইকেল বুকিং দিচ্ছে। ওই তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার সন্ধ্যার পর নাটোর গুরুদাসপুর উপজেলার চাঁচকৈড় বাজারের অভিযান চালিয়ে কাজেম প্রামাণিকের ছেলে নুর ইসলামকে ১ টি চোরাই ডিসকভার ১২৫ সিসি মোটর সাইকেলসহ আটক করা হয়। এসময় চোর চক্রের ২-৩ জন সদস্য র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়।
পরবর্তীতে আটককৃত নুর ইসলামের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে আন্তজেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের সদস্য পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলার পাঠান পাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রাকিব হাসানকে একটি কালো রঙের পালসার ১৫০ সিসি চোরাই মোটর সাইকেল এবং গুরুদাসপুর উপজেলার বিলাসপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে তুহিন পাগলাকে একটি ড্রাগন ১২৫ সিসি ও একটি সাদা রঙের ১৫০ সিসি চোরাই মোটরসাইকেলসহ আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা র‍্যাবকে জানায়, তারা সকলেই আন্তজেলা চোর চক্রের সদস্য। দীর্ঘদিন ধরে তারা বিভিন্ন জেলা হতে মোটর সাইকেল চুরি করে অনলাইন প্লাটফর্মে মোটর সাইকেল বিক্রির চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে গ্রাহক সংগ্রহ করে তাদের কাছে চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রয় করে আসছে। এব্যাপারে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

নাটোরে ৪টি চোরাই মোটর সাইকেল সহ চোর চক্রের ৩ সদস্য আটক

আপডেট সময় : ০২:৫৩:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২১

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে নুর ইসলাম (২৮), রাকিব হাসান (৩০) ও তুহিন পাগলা (৩০) নামে আন্তঃজেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করা সহ ৪টি চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার করেছে র‍্যাব। চক্রটি অনলাইনে ক্রেতাদের আকৃষ্ট করে ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সির মাধ্যমে চোরাই মোটর সাইকেল বিক্রি করে আসছিল। সোমবার একটি ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সিতে আন্তঃজেলা চোরচক্রের কতিপয় সদস্য পার্সেলের মাধ্যমে চোরাই মোটরসাইকেল বুকিং দিতে গেলে বিষয়টি জানতে পারে র‍্যাব-৫। ওই খবরের ভিত্তিতে র‍্যাব-৫ এর একটি দল সোমবার (২০ ডিসেম্বর) রাতভর পাবনা জেলার চাটমোহর এবং নাটোর জেলার গুরুদাসপুর ও সদর উপজেলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোর চক্রের ওই তিন সদস্যকে আটক সহ চোরাই মোটর সাইকেলগুলি উদ্ধার করে।
মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) কোম্পানি কমান্ডার এর কার্যালয়ে দুপুরে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে র‍্যাব-৫ নাটোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন এই তথ্য জানান।
কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, সিপিসি-২, নাটোর ক্যাম্প, র‍্যাব-৫, রাজশাহীর একটি অপারেশন দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, নাটোর জেলার সদর থানাধীন একটি ট্রান্সপোর্ট পার্সেল এজেন্সিতে আন্তঃজেলা চোরচক্রের কতিপয় সদস্য পার্সেলের মাধ্যমে চোরাই মোটরসাইকেল বুকিং দিচ্ছে। ওই তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার সন্ধ্যার পর নাটোর গুরুদাসপুর উপজেলার চাঁচকৈড় বাজারের অভিযান চালিয়ে কাজেম প্রামাণিকের ছেলে নুর ইসলামকে ১ টি চোরাই ডিসকভার ১২৫ সিসি মোটর সাইকেলসহ আটক করা হয়। এসময় চোর চক্রের ২-৩ জন সদস্য র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়।
পরবর্তীতে আটককৃত নুর ইসলামের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাৎক্ষনিক অভিযান চালিয়ে আন্তজেলা মোটর সাইকেল চোর চক্রের সদস্য পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলার পাঠান পাড়া গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে রাকিব হাসানকে একটি কালো রঙের পালসার ১৫০ সিসি চোরাই মোটর সাইকেল এবং গুরুদাসপুর উপজেলার বিলাসপুর গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে তুহিন পাগলাকে একটি ড্রাগন ১২৫ সিসি ও একটি সাদা রঙের ১৫০ সিসি চোরাই মোটরসাইকেলসহ আটক করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা র‍্যাবকে জানায়, তারা সকলেই আন্তজেলা চোর চক্রের সদস্য। দীর্ঘদিন ধরে তারা বিভিন্ন জেলা হতে মোটর সাইকেল চুরি করে অনলাইন প্লাটফর্মে মোটর সাইকেল বিক্রির চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে গ্রাহক সংগ্রহ করে তাদের কাছে চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রয় করে আসছে। এব্যাপারে নাটোর সদর থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।