ঢাকা ১২:৪৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নাটোরে ছুরিকাঘাতে স্ত্রীকে হত্যা; স্বামী ও তার সহযোগী পলাতক!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪২:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২ ২৭ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে স্ত্রী মিনা খাতুন (মিম) কে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়েছে বখাটে স্বামী রাজু প্রামানিক ও তার সহযোগী।
আজ শনিবার সকালে সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বর্তমানে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। স্বামী রাজু প্রামানিক নাটোর শহরের বড়গাছা বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে।
নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক জুবায়ের ও নিহতের স্বজনরা জানান, নাটোর শহরের বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে রাজু প্রামানিকের সাথে বিয়ে হয় মৃত আব্দুল মোমিনের মেয়ে মিনা খাতুন মিম এর। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। রাজু তার স্ত্রী মিমকে মাঝে মাঝেই মারধর করতো। এনিয়ে নাটোর সদর থানায় রাজুর বিরুদ্ধে জিডিও করা হয়। অত্যাচারের এক পর্যায়ে প্রায় এক বছর পূর্বে মিমকে নিয়ে বাড়ীতে চলে যায় তার মা চামেলী বেগম। মিমকে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য রাজু মাঝে মাঝেই শ্বশুর বাড়ীতে যেত। এ সময় মিম তার সাথে ফিরে আসতে না চাইলে মিমকে মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখাতো রাজু । এরই এক পর্যায়ে রাজু ও তার সহযোগী একটি মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে মিমকে এলাপাথারী ছুড়িকাঘাত করে। এ সময় মিম এর ছোট বোন বাধা দিতে গেলে তাকেও ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় মিমকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। রাজু ও তার সহযোগীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযানে নেমেছে পুলিশ।নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে স্ত্রী মিনা খাতুন (মিম) কে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়েছে বখাটে স্বামী রাজু প্রামানিক ও তার সহযোগী।
শনিবার (২৯ জানুয়ারী) সকালে নাটর সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
ঘাতক স্বামী রাজু প্রামানিক শহরের বড়গাছা বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে।
নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক জুবায়ের ও নিহতের স্বজনরা জানান, নাটোর শহরের বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে রাজু প্রামানিকের সাথে বিয়ে হয় মৃত আব্দুল মোমিনের মেয়ে মিনা খাতুন মিম’র। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। রাজু তার স্ত্রী মিমকে মাঝে মাঝেই মারধর করতো। এনিয়ে নাটোর সদর থানায় রাজুর বিরুদ্ধে অভিযোগও করা হয়। অত্যাচারের এক পর্যায়ে প্রায় এক বছর পূর্বে মিমকে নিয়ে বাড়ীতে চলে যায় তার মা চামেলী বেগম। মিমকে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য রাজু মাঝে মাঝেই শ্বশুর বাড়ীতে যেত। এ সময় মিম তার সাথে ফিরে আসতে না চাইলে মিমকে মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখাতো রাজু। এরই এক পর্যায়ে রাজু ও তার সহযোগী একটি মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে মিমকে এলাপাথারী ছুড়িকাঘাত করে। এ সময় মিম’র ছোট বোন বাধা দিতে গেলে তাকেও ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় মিমকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। রাজু ও তার সহযোগীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযানে নেমেছে পুলিশ। আর ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

নাটোরে ছুরিকাঘাতে স্ত্রীকে হত্যা; স্বামী ও তার সহযোগী পলাতক!

আপডেট সময় : ১২:৪২:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে স্ত্রী মিনা খাতুন (মিম) কে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়েছে বখাটে স্বামী রাজু প্রামানিক ও তার সহযোগী।
আজ শনিবার সকালে সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বর্তমানে মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। স্বামী রাজু প্রামানিক নাটোর শহরের বড়গাছা বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে।
নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক জুবায়ের ও নিহতের স্বজনরা জানান, নাটোর শহরের বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে রাজু প্রামানিকের সাথে বিয়ে হয় মৃত আব্দুল মোমিনের মেয়ে মিনা খাতুন মিম এর। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। রাজু তার স্ত্রী মিমকে মাঝে মাঝেই মারধর করতো। এনিয়ে নাটোর সদর থানায় রাজুর বিরুদ্ধে জিডিও করা হয়। অত্যাচারের এক পর্যায়ে প্রায় এক বছর পূর্বে মিমকে নিয়ে বাড়ীতে চলে যায় তার মা চামেলী বেগম। মিমকে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য রাজু মাঝে মাঝেই শ্বশুর বাড়ীতে যেত। এ সময় মিম তার সাথে ফিরে আসতে না চাইলে মিমকে মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখাতো রাজু । এরই এক পর্যায়ে রাজু ও তার সহযোগী একটি মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে মিমকে এলাপাথারী ছুড়িকাঘাত করে। এ সময় মিম এর ছোট বোন বাধা দিতে গেলে তাকেও ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় মিমকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। রাজু ও তার সহযোগীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযানে নেমেছে পুলিশ।নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে স্ত্রী মিনা খাতুন (মিম) কে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়েছে বখাটে স্বামী রাজু প্রামানিক ও তার সহযোগী।
শনিবার (২৯ জানুয়ারী) সকালে নাটর সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।
ঘাতক স্বামী রাজু প্রামানিক শহরের বড়গাছা বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে।
নাটোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক জুবায়ের ও নিহতের স্বজনরা জানান, নাটোর শহরের বুড়াদরগা এলাকার সুজন প্রামানিকের ছেলে রাজু প্রামানিকের সাথে বিয়ে হয় মৃত আব্দুল মোমিনের মেয়ে মিনা খাতুন মিম’র। বিয়ের পর থেকেই তাদের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। রাজু তার স্ত্রী মিমকে মাঝে মাঝেই মারধর করতো। এনিয়ে নাটোর সদর থানায় রাজুর বিরুদ্ধে অভিযোগও করা হয়। অত্যাচারের এক পর্যায়ে প্রায় এক বছর পূর্বে মিমকে নিয়ে বাড়ীতে চলে যায় তার মা চামেলী বেগম। মিমকে ফিরিয়ে নিয়ে আসার জন্য রাজু মাঝে মাঝেই শ্বশুর বাড়ীতে যেত। এ সময় মিম তার সাথে ফিরে আসতে না চাইলে মিমকে মেরে ফেলার ভয়ভীতি দেখাতো রাজু। এরই এক পর্যায়ে রাজু ও তার সহযোগী একটি মোটর সাইকেল যোগে ঘটনাস্থলে গিয়ে মিমকে এলাপাথারী ছুড়িকাঘাত করে। এ সময় মিম’র ছোট বোন বাধা দিতে গেলে তাকেও ছুড়ি দিয়ে আঘাত করে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় মিমকে নাটোর সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। রাজু ও তার সহযোগীকে গ্রেফতারের জন্য অভিযানে নেমেছে পুলিশ। আর ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।