ঢাকা ০১:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নাটোরের লালপুরে পদ্মার বুকে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৪৭:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২ ১৭ বার পড়া হয়েছে

পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব

আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ফজলুর রহমান পলাশ, লালপুর (নাটোর ) প্রতিনিধিঃ
নাটোরের লালপুরে পদ্মার বুকে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় প্রতি বছরই শীতের শেষে পদ্মায় জেগে থাকা (দামুস) নদীর হাঁটু পানিতে তাই শুরু হয়েছে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব।

বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) লালপুরের কদমচিলান, চাঁদপুর, মোহরকয়া, মোমিনপুর, বড়াইগ্রামের বনপাড়া, রাজশাহীর বাঘার বাউসা সহ বিভিন্ন গ্রামের দেড়শতাধিক মানুষ দল বেঁধে নামেন বিলমাড়ীয়া বাজার সংলগ্ন পদ্মার (দামুসে) হাঁটু পানিতে। তাদের পলোর নিচে ধরা পড়ে নানা জাতের দেশীয় মাছ।

বাঁশ ও জাল দিয়ে ছোট বড় অসংখ্য পলো তৈরি করা হয়েছে। আগে থেকেই এলাকায় মাছ ধরার ঘোষণা দেওয়া। তাই এই এলাকার শৌখিন ও পেশাদার শিকারিরা মাছ ধরতে নদীতে নেমে পড়েন। এ এক গ্রামবাংলার ঐতিহ্য। বংশপরম্পরায় চলে আসছে এভাবে মাছ ধরা। আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামের শত-শত মানুষ আসেন মাছ ধরার এ উৎসবে অংশ নিতে।

উৎসুক গ্রামবাসী নদীর পাড়ে বসে দেখছেন এ উৎসব।মাছ ধরার উৎসবে অংশ নেয়া স্থানীয় মোহরকয়া গ্রামের সাজদার রহমান বলেন, ‘আমি পেশায় একজন কৃষক। প্রতি বছরের শীতের এ সময়ে নদীর পানি কমে যায়। তখন আশপাশের গ্রামের মানুষরা একসাথে মিলে পলো দিয়ে মাছ ধরি। আজকেও এ মাছ ধরার উৎসবে প্রায় দু’শ জনের মতো অংশ নিয়েছে।’

বিলমাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক বলেন, শীতকালের শেষের দিকের প্রতিবছরই মাছ ধরার উৎসব হয়ে থাকে, এবারে শীত একটু বেশি হওয়ায় মাছের পরিমাণ কম ।তাছাড়াও নদী শুকিয়ে যাওয়ার কারণে ছোট হয়ে গেছে মাছ ধরার জায়গা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

নাটোরের লালপুরে পদ্মার বুকে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ১০:৪৭:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২

ফজলুর রহমান পলাশ, লালপুর (নাটোর ) প্রতিনিধিঃ
নাটোরের লালপুরে পদ্মার বুকে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় প্রতি বছরই শীতের শেষে পদ্মায় জেগে থাকা (দামুস) নদীর হাঁটু পানিতে তাই শুরু হয়েছে পলো দিয়ে মাছ ধরা উৎসব।

বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) লালপুরের কদমচিলান, চাঁদপুর, মোহরকয়া, মোমিনপুর, বড়াইগ্রামের বনপাড়া, রাজশাহীর বাঘার বাউসা সহ বিভিন্ন গ্রামের দেড়শতাধিক মানুষ দল বেঁধে নামেন বিলমাড়ীয়া বাজার সংলগ্ন পদ্মার (দামুসে) হাঁটু পানিতে। তাদের পলোর নিচে ধরা পড়ে নানা জাতের দেশীয় মাছ।

বাঁশ ও জাল দিয়ে ছোট বড় অসংখ্য পলো তৈরি করা হয়েছে। আগে থেকেই এলাকায় মাছ ধরার ঘোষণা দেওয়া। তাই এই এলাকার শৌখিন ও পেশাদার শিকারিরা মাছ ধরতে নদীতে নেমে পড়েন। এ এক গ্রামবাংলার ঐতিহ্য। বংশপরম্পরায় চলে আসছে এভাবে মাছ ধরা। আশপাশের বেশ কয়েকটি গ্রামের শত-শত মানুষ আসেন মাছ ধরার এ উৎসবে অংশ নিতে।

উৎসুক গ্রামবাসী নদীর পাড়ে বসে দেখছেন এ উৎসব।মাছ ধরার উৎসবে অংশ নেয়া স্থানীয় মোহরকয়া গ্রামের সাজদার রহমান বলেন, ‘আমি পেশায় একজন কৃষক। প্রতি বছরের শীতের এ সময়ে নদীর পানি কমে যায়। তখন আশপাশের গ্রামের মানুষরা একসাথে মিলে পলো দিয়ে মাছ ধরি। আজকেও এ মাছ ধরার উৎসবে প্রায় দু’শ জনের মতো অংশ নিয়েছে।’

বিলমাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক বলেন, শীতকালের শেষের দিকের প্রতিবছরই মাছ ধরার উৎসব হয়ে থাকে, এবারে শীত একটু বেশি হওয়ায় মাছের পরিমাণ কম ।তাছাড়াও নদী শুকিয়ে যাওয়ার কারণে ছোট হয়ে গেছে মাছ ধরার জায়গা।