ঢাকা ১২:৪৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:১২:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২ ১৫ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে। স্টেশনে নতুন ইঞ্জিন দেখে সাধারণ যাত্রীরা ছবি, ভিডিও এবং সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পরে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলের যাত্রীবাহী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনে সংযুক্ত নতুন ইঞ্জিনটি প্রথমবারের মতো বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ ) দুপুরে ঈশ্বরদী থেকে চালিয়ে নিয়ে আনলেন লোকো মাস্টার তৌহিদুল ইসলাম। পরে দুপুর আড়াইটায় ইঞ্জিনটি একই ট্রেনে খুলনার উদ্দেশ্যে যাত্রীদের নিয়ে রাজশাহী স্টেশন ছেড়ে যায়।

আমেরিকার তৈরি ৩,৩০০ হর্সপাওয়ারের ইঞ্জিনটির চালক কক্ষে এসি সংযুক্ত রয়েছে। ইঞ্জিনটির সামনে ও পেছনে রয়েছে সিসি ক্যামেরা, একই সাথে রাতে আলোর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি লাইট।

বেঁধে দেয়া গতি প্রতি ঘন্টায় ১৪০ কিলো মিটার। যদিও বাংলাদেশের রেল লাইনের গড় গতিসীমায় তুলনায় এই গতি বেশি। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনের সাথে একজন করে জনবল দিয়েছে প্রাথমিক অবস্থায় এর কোন ত্রুটি পাওয়া গেলে তা সংশোধন বা নির্ণয়ের জন্য।

বাংলাদেশ রেলে সংযুক্ত নতুন ১৬টি ইঞ্জিনের সবগুলোই ব্রডগেজ লাইনের জন্য। ব্রডগেজ মিটারগেজ লাইনের জন্য পর্যায়ক্রমে আনা হবে মোট ৪০ টি ইঞ্জিন। এভাবে পর্যায়ক্রমে প্রতিটি নতুন ইঞ্জিন যাত্রীবাহী ট্রেনের সাথে সংযুক্ত করে চালিয়ে দেখা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে

আপডেট সময় : ০৩:১২:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩১ মার্চ ২০২২

ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন লোকোমোটিভ রাজশাহীতে পৌঁছেছে। স্টেশনে নতুন ইঞ্জিন দেখে সাধারণ যাত্রীরা ছবি, ভিডিও এবং সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পরে।
পশ্চিমাঞ্চল রেলের যাত্রীবাহী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনে সংযুক্ত নতুন ইঞ্জিনটি প্রথমবারের মতো বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ ) দুপুরে ঈশ্বরদী থেকে চালিয়ে নিয়ে আনলেন লোকো মাস্টার তৌহিদুল ইসলাম। পরে দুপুর আড়াইটায় ইঞ্জিনটি একই ট্রেনে খুলনার উদ্দেশ্যে যাত্রীদের নিয়ে রাজশাহী স্টেশন ছেড়ে যায়।

আমেরিকার তৈরি ৩,৩০০ হর্সপাওয়ারের ইঞ্জিনটির চালক কক্ষে এসি সংযুক্ত রয়েছে। ইঞ্জিনটির সামনে ও পেছনে রয়েছে সিসি ক্যামেরা, একই সাথে রাতে আলোর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি লাইট।

বেঁধে দেয়া গতি প্রতি ঘন্টায় ১৪০ কিলো মিটার। যদিও বাংলাদেশের রেল লাইনের গড় গতিসীমায় তুলনায় এই গতি বেশি। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনের সাথে একজন করে জনবল দিয়েছে প্রাথমিক অবস্থায় এর কোন ত্রুটি পাওয়া গেলে তা সংশোধন বা নির্ণয়ের জন্য।

বাংলাদেশ রেলে সংযুক্ত নতুন ১৬টি ইঞ্জিনের সবগুলোই ব্রডগেজ লাইনের জন্য। ব্রডগেজ মিটারগেজ লাইনের জন্য পর্যায়ক্রমে আনা হবে মোট ৪০ টি ইঞ্জিন। এভাবে পর্যায়ক্রমে প্রতিটি নতুন ইঞ্জিন যাত্রীবাহী ট্রেনের সাথে সংযুক্ত করে চালিয়ে দেখা হবে।