ঢাকা ০২:১৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১২:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২ ২৩ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের

রাজশাহী ব্যুরো
টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের। রাজশাহী মহানগরীর সাগর পাড়া বটতলা মোড়ে রাস্তায় লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছেন প্রায় দুই’শ নারী-পুরুষ। দুটি লাইনে ভাগ হয়ে তারা ছোট ছোট বাজারের ব্যাগ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন। কেউ কেউ বসেও পড়েছেন লাইনের মধ্যেই। মঙ্গলবার সকাল ১১ টার সময় এমন দৃশ্য দেখে যায়।

বৃদ্ধ নুরনাহার বেওয়া বলেন, দাঁড়ায় থাকতে থাকতে কমর ব্যাথা হয়ে গেছে। তাই বসে পড়েছি।

সরেজমিন দেখা গেছে, সাগর পাড়ার এই স্থানে মঙ্গলবার  সকাল নয়টায় যাওয়ার কথা ছিল টিসিবির নায্যমূল্যের পণ্য বিক্রির ট্রাক। সেই সময়ের আগ থেকেই অনেকেই ওই স্থানে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে শুরু করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বেলা সাড়ে ১২টার দিকে গিয়ে পৌঁছে ওই ট্রাকটি। এর পর চিনি ২কেজি, ডাল-২ কেজি, তেল ২ লিটার ও বাধ্যতা মূলক ৩ থেকে ৫ কেজি বাধ্যতা মূলকভাবে পচা পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করা হয় ক্রেতাদের কাছে।

যদিও টিসিবির রাজশাহী আঞ্চলিক কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, বাধ্যতামূলক কোনো পণ্যই বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হয়নি। কিন্তু ডিলাররা কেন বাধ্যতা মূলক বিক্রি করছেন খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গত মঙ্গলবারের বরাদ্দে পেঁয়াজ ছিলনা। আজ বুধবার ট্রাকে রাজশাহীতে পেঁয়াজ দেওয়াহবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এই পেঁয়াজ কোথায় থেকে গেল, সেটিও খোঁজ নেওয়াহবে।

দবিরউদ্দিন নামের এক ক্রেতা বলেন, তেলের দাম বাজারে খুব বেশি। তাই টিসিবির সোয়াবিন নিতেএসে তিন কেজি পচা জোর করে দেওয়া হলো। বাজারে ভালো মাণের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা দরে। অথচ টিসিবির পচা দুর্গন্ধযুক্ত পেয়াজ কিনতে হলো ৩০ টাকা কেজি দরে। তেলের দাম কম পাওয়ার আশায় এসে এখন দেখছি দুই ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকাটাই লোকসান হলো।

টিসিবির পণ্য কিনতে আসা আমেনা বেগম বলেন, ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে পচা পেঁয়াজ কিনেবাড়িতে যেতে হচ্ছে। তেল আর চিনির দাম কম থাকায় আমরা আসি। কিন্তু পচা পেয়াঁজ দিয়ে কি করবো?

এদিকে টিসিবির ডিলার সফিকুল ইসলামের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পেঁয়াজ গত রবিবারে আমাদের ডিও করতে বাধ্য করা হয়। পচা পেঁয়াজই আমরা পেয়েছি। এখন ক্রেতারা না নিলে এগুলো কি করবো। তাই বাধ্য করা হচ্ছে কিনতে।
জানা গেছে, রাজশাহীতে মঙ্গলবার ৫টি পয়েন্টে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়। সবকটি স্থানেই এভাবে পচা পেঁয়াজ কিনতে বাধ্য করা হয় ক্রেতাদের। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ দেখা দেয় ক্রেতাদের মাঝে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের

আপডেট সময় : ০৯:১২:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২২

টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের

রাজশাহী ব্যুরো
টিসিবির পূণ্যতে পচা পেঁয়াজ নিতে বাধ্য করা হচ্ছে ক্রেতাদের। রাজশাহী মহানগরীর সাগর পাড়া বটতলা মোড়ে রাস্তায় লাইন ধরে দাঁড়িয়ে আছেন প্রায় দুই’শ নারী-পুরুষ। দুটি লাইনে ভাগ হয়ে তারা ছোট ছোট বাজারের ব্যাগ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন। কেউ কেউ বসেও পড়েছেন লাইনের মধ্যেই। মঙ্গলবার সকাল ১১ টার সময় এমন দৃশ্য দেখে যায়।

বৃদ্ধ নুরনাহার বেওয়া বলেন, দাঁড়ায় থাকতে থাকতে কমর ব্যাথা হয়ে গেছে। তাই বসে পড়েছি।

সরেজমিন দেখা গেছে, সাগর পাড়ার এই স্থানে মঙ্গলবার  সকাল নয়টায় যাওয়ার কথা ছিল টিসিবির নায্যমূল্যের পণ্য বিক্রির ট্রাক। সেই সময়ের আগ থেকেই অনেকেই ওই স্থানে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে শুরু করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বেলা সাড়ে ১২টার দিকে গিয়ে পৌঁছে ওই ট্রাকটি। এর পর চিনি ২কেজি, ডাল-২ কেজি, তেল ২ লিটার ও বাধ্যতা মূলক ৩ থেকে ৫ কেজি বাধ্যতা মূলকভাবে পচা পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করা হয় ক্রেতাদের কাছে।

যদিও টিসিবির রাজশাহী আঞ্চলিক কর্মকর্তা রবিউল ইসলাম বলেন, বাধ্যতামূলক কোনো পণ্যই বিক্রির নির্দেশ দেওয়া হয়নি। কিন্তু ডিলাররা কেন বাধ্যতা মূলক বিক্রি করছেন খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গত মঙ্গলবারের বরাদ্দে পেঁয়াজ ছিলনা। আজ বুধবার ট্রাকে রাজশাহীতে পেঁয়াজ দেওয়াহবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এই পেঁয়াজ কোথায় থেকে গেল, সেটিও খোঁজ নেওয়াহবে।

দবিরউদ্দিন নামের এক ক্রেতা বলেন, তেলের দাম বাজারে খুব বেশি। তাই টিসিবির সোয়াবিন নিতেএসে তিন কেজি পচা জোর করে দেওয়া হলো। বাজারে ভালো মাণের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০-৩৫ টাকা দরে। অথচ টিসিবির পচা দুর্গন্ধযুক্ত পেয়াজ কিনতে হলো ৩০ টাকা কেজি দরে। তেলের দাম কম পাওয়ার আশায় এসে এখন দেখছি দুই ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকাটাই লোকসান হলো।

টিসিবির পণ্য কিনতে আসা আমেনা বেগম বলেন, ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে পচা পেঁয়াজ কিনেবাড়িতে যেতে হচ্ছে। তেল আর চিনির দাম কম থাকায় আমরা আসি। কিন্তু পচা পেয়াঁজ দিয়ে কি করবো?

এদিকে টিসিবির ডিলার সফিকুল ইসলামের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পেঁয়াজ গত রবিবারে আমাদের ডিও করতে বাধ্য করা হয়। পচা পেঁয়াজই আমরা পেয়েছি। এখন ক্রেতারা না নিলে এগুলো কি করবো। তাই বাধ্য করা হচ্ছে কিনতে।
জানা গেছে, রাজশাহীতে মঙ্গলবার ৫টি পয়েন্টে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়। সবকটি স্থানেই এভাবে পচা পেঁয়াজ কিনতে বাধ্য করা হয় ক্রেতাদের। এ নিয়ে চরম ক্ষোভ দেখা দেয় ক্রেতাদের মাঝে।