ঢাকা ১২:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৫২:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ ২০২২ ২০ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। রাজশাহীর বাঘায় গভীর রাতে ১৪ জন কৃষকের খেতের পেঁয়াজ নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের টলটলিপাড়া, চকরপাড়া ও ভেড়ালীপাড়া বিলে পেঁয়াজ-রসুন কেটে ও উপড়ে নষ্ট করার ঘটনা ঘটে।

কৃষকরা বুধবার খেতে গিয়ে দৃশ্য দেখতে পান। প্রায় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা। মঙ্গলবার গভীর রাতে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

বাঘার বাউসা টলটলিপাড়া, বাউসা চকরপাড়া ও বাউসা ভেড়ালী পাড়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক রবিউল ইসলাম, লিটন হোসেন, আলম হোসেন, মেরাজুল ইসলাম, জনাব আলী, কালাম হোসেন, মিলন আলী, শাহিন, বাবু , রায়হান , নাসির উদ্দিন , জামরুল ইসলামসহ লেকু প্রামানিক জানান, তারা ১৪ জন কৃষক মিলে টলটলিপাড়া, চকরপাড়া ও ভেড়ালীপাড়া বিলে প্রায় ২০ বিঘা জমিতে পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ করছিলেন। দুর্বৃত্তরা প্রায় ১ বিঘা জমির পেঁয়াজ উপড়ে তুলে ফেলে নষ্ট করেছে। এছাড়াও বেশ কিছু জমির রসুন ও পেয়াজ কেটে ফেলেন । জমিতে সাদা কাগজে লিখে রাখা দুই পাতার চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লেখা প্রথম পাতায় রয়েছে শাকিম রতম শরিফুল ১ লাখ, শরিফুল রতন শাকিম মেম্বার তেনা নেতা আমার গাড়ি চাই । দ্বিতীয় পৃষ্ঠায় লিখা রয়েছে শাকিম রতন মেম্বার শরিফুল নেতা আমার গাড়ি চাই। নিচে লেখা ছিল শরিফুল।

বাউসা ভেড়ালীপাড়ার পল্টু মিয়া জানান, এনজিও থেকে ৩০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে দুই বিঘা জমি লিজ নিয়ে পেঁয়াজের চাষ করেছিলাম। তাঁর প্রায় ২ কাঠা জমির পেঁয়াজ নষ্ট করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শাকীম আহমেদ এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কোন না কোন বিষয়ে শত্রুতার জেরে ফসল নষ্ট করে তাদের ক্ষতি করা হয়েছে। তবে কে কারা এধরনের কাজ করেছে সে বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। অপরাধিদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা

আপডেট সময় : ১১:৫২:১৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ ২০২২

চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা

এম এম মামুন, রাজশাহী ব্যুরো:
চিরকুট লিখে কৃষকের পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ নষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। রাজশাহীর বাঘায় গভীর রাতে ১৪ জন কৃষকের খেতের পেঁয়াজ নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের টলটলিপাড়া, চকরপাড়া ও ভেড়ালীপাড়া বিলে পেঁয়াজ-রসুন কেটে ও উপড়ে নষ্ট করার ঘটনা ঘটে।

কৃষকরা বুধবার খেতে গিয়ে দৃশ্য দেখতে পান। প্রায় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা। মঙ্গলবার গভীর রাতে এমন ঘটনা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

বাঘার বাউসা টলটলিপাড়া, বাউসা চকরপাড়া ও বাউসা ভেড়ালী পাড়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক রবিউল ইসলাম, লিটন হোসেন, আলম হোসেন, মেরাজুল ইসলাম, জনাব আলী, কালাম হোসেন, মিলন আলী, শাহিন, বাবু , রায়হান , নাসির উদ্দিন , জামরুল ইসলামসহ লেকু প্রামানিক জানান, তারা ১৪ জন কৃষক মিলে টলটলিপাড়া, চকরপাড়া ও ভেড়ালীপাড়া বিলে প্রায় ২০ বিঘা জমিতে পেঁয়াজ ও রসুনের আবাদ করছিলেন। দুর্বৃত্তরা প্রায় ১ বিঘা জমির পেঁয়াজ উপড়ে তুলে ফেলে নষ্ট করেছে। এছাড়াও বেশ কিছু জমির রসুন ও পেয়াজ কেটে ফেলেন । জমিতে সাদা কাগজে লিখে রাখা দুই পাতার চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লেখা প্রথম পাতায় রয়েছে শাকিম রতম শরিফুল ১ লাখ, শরিফুল রতন শাকিম মেম্বার তেনা নেতা আমার গাড়ি চাই । দ্বিতীয় পৃষ্ঠায় লিখা রয়েছে শাকিম রতন মেম্বার শরিফুল নেতা আমার গাড়ি চাই। নিচে লেখা ছিল শরিফুল।

বাউসা ভেড়ালীপাড়ার পল্টু মিয়া জানান, এনজিও থেকে ৩০ হাজার টাকা ঋণ নিয়ে দুই বিঘা জমি লিজ নিয়ে পেঁয়াজের চাষ করেছিলাম। তাঁর প্রায় ২ কাঠা জমির পেঁয়াজ নষ্ট করা হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শাকীম আহমেদ এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কোন না কোন বিষয়ে শত্রুতার জেরে ফসল নষ্ট করে তাদের ক্ষতি করা হয়েছে। তবে কে কারা এধরনের কাজ করেছে সে বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। অপরাধিদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।