ঢাকা ০১:১২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১৬:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২ ১৫ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা

নাটোর প্রতিনিধিঃ
কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা। নাটোরে কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি (ওএমএস) এর ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা উদ্ধার করেছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)।

বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে শহরের দক্ষিণ বড়গাছা এলাকা থেকে ডিলার সামসুদ্দিন সরকারের ডিলার পয়েন্ট থেকে এগুলো উদ্ধার করা হয়েছে।

জেলা খাদ্য বিভাগ সুত্রে জানাযায়, ডিলার সামসুদ্দিন সরকারকে খোলাবাজারে বিক্রির জন্য ৪দিন আগে ১টন চাল ও ১টন আটা বরাদ্দ দেয়া হয়। তবে সেখানে ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা পায় এনএসআইয়ের সদস্যরা। অভিযানের সময় ডিলার সামসুদ্দিন সরকারকে পাওয়া যায়নি। পরে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকতার্রা ডিলারের পাচারকরা ওএমসের ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা তার ডিলার পয়েন্টে পাঠিয়ে দেন। পরবর্তীতে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন অর রশিদ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকৃত চাল ও আটা ওই পয়েন্ট থেকেই বিক্রি ব্যবস্থা করেন। অভিযুক্ত ডিলারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক।

এদিকে ডিলার শামছুদ্দিন সরকার তার মোবাইল ফোনে এই প্রতিবেদককে জানান, তিনি তার নামে বরাদ্দকৃত চাল ও আটা উত্তোলন করতে গিয়ে মঙ্গলবার রাত হয়ে যায়। কিছু উত্তোলন করে তার ঘরে রাখতে সক্ষম হন। রাত হওয়ায় উত্তোলনকৃত কিছু পরিমান চাল ও আটা গুদামের পাশে রেখে দেন। যা বুধবার সকালে নিয়ে তার ওএমএস দোকান ঘরে নেওয়ার সময় গোয়েন্দা সংস্থা আটক করে খাদ্য বিভাগকে জানান। তিনি কালো বাজারের জন্য মজুদ করেননি। তাকে ষড়যন্ত্র করে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি প্রায় ৫০ বছর ধরে খাদ্য ব্যবসায় জড়িত থেকে সুনামের সাথে ব্যবসা করে আসছেন।

নাটোর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন-অর-রশিদ জানান, ওএমএস এর চাল ও আটা কালো বাজারের জন্য মজুদ করার সত্যতা পাওয়া গেছে। ওএমএস ডিলার শামছুদ্দিন সরকারের নামে বরাদ্দ নিধার্রিত পরিমানের চাল ও আটা কম পাওয়া যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা

আপডেট সময় : ১১:১৬:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২

কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা

নাটোর প্রতিনিধিঃ
কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া ওএমএস এর চাল-আটা। নাটোরে কালো বাজারে বিক্রির উদ্দ্যেশে নেয়া খাদ্য বান্ধব কর্মসূচি (ওএমএস) এর ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা উদ্ধার করেছে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা (এনএসআই)।

বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে শহরের দক্ষিণ বড়গাছা এলাকা থেকে ডিলার সামসুদ্দিন সরকারের ডিলার পয়েন্ট থেকে এগুলো উদ্ধার করা হয়েছে।

জেলা খাদ্য বিভাগ সুত্রে জানাযায়, ডিলার সামসুদ্দিন সরকারকে খোলাবাজারে বিক্রির জন্য ৪দিন আগে ১টন চাল ও ১টন আটা বরাদ্দ দেয়া হয়। তবে সেখানে ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা পায় এনএসআইয়ের সদস্যরা। অভিযানের সময় ডিলার সামসুদ্দিন সরকারকে পাওয়া যায়নি। পরে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকতার্রা ডিলারের পাচারকরা ওএমসের ৬৫০ কেজি চাল ও ২৫০ কেজি আটা তার ডিলার পয়েন্টে পাঠিয়ে দেন। পরবর্তীতে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন অর রশিদ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকৃত চাল ও আটা ওই পয়েন্ট থেকেই বিক্রি ব্যবস্থা করেন। অভিযুক্ত ডিলারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক।

এদিকে ডিলার শামছুদ্দিন সরকার তার মোবাইল ফোনে এই প্রতিবেদককে জানান, তিনি তার নামে বরাদ্দকৃত চাল ও আটা উত্তোলন করতে গিয়ে মঙ্গলবার রাত হয়ে যায়। কিছু উত্তোলন করে তার ঘরে রাখতে সক্ষম হন। রাত হওয়ায় উত্তোলনকৃত কিছু পরিমান চাল ও আটা গুদামের পাশে রেখে দেন। যা বুধবার সকালে নিয়ে তার ওএমএস দোকান ঘরে নেওয়ার সময় গোয়েন্দা সংস্থা আটক করে খাদ্য বিভাগকে জানান। তিনি কালো বাজারের জন্য মজুদ করেননি। তাকে ষড়যন্ত্র করে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি প্রায় ৫০ বছর ধরে খাদ্য ব্যবসায় জড়িত থেকে সুনামের সাথে ব্যবসা করে আসছেন।

নাটোর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক হারুন-অর-রশিদ জানান, ওএমএস এর চাল ও আটা কালো বাজারের জন্য মজুদ করার সত্যতা পাওয়া গেছে। ওএমএস ডিলার শামছুদ্দিন সরকারের নামে বরাদ্দ নিধার্রিত পরিমানের চাল ও আটা কম পাওয়া যায়।