ঢাকা ০১:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

এইচএসসি পরীক্ষার্থী দিনা’র মুখে এসিড নিক্ষেপ বখাটেদের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২২:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ নভেম্বর ২০২১ ৩৮৫ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে দিনা খাতুন (১৯) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মুখে এসিড নিক্ষেপ করেছে বখাটেরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।
রোববার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া বাজারে এই এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।
দিনা খাতুন ডাঙ্গাপাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের মেয়ে। সে চলতি বছর রাজশাহী সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।
এসিড নিক্ষেপকারীদের মধ্যে একজনের নাম মুহিন। সে পাশ্ববর্তী দত্তপড়া এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। মুহিনের সহযোগিদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তাদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশের একাধিক টিম।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য বাড়ি থেকে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন পরীক্ষার্থী দিনা খাতুন। তাকে প্রায়ই বিরক্ত করত স্থানীয় বখাটে মুহিন ও তার সহযোগিরা। রোববার বিকেলে দিনা বাড়ির অদূরে প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার সময় বখাটে মুহিন তার দুই সহযোগি নিয়ে মোটরসাইকেল দিয়ে দিনার পথরোধ করে। এসময় দিনা দাঁড়ানোমাত্রই বোতলে থাকা এসিড নিক্ষেপ করে তার মুখ মন্ডল ঝলসে দেয় মুহিন। দিনা চিৎকার করলে স্থানীয়দের এগিয়ে আসতে দেখে তিন বখাটে ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায় । এসময় স্থানীয়রা দিনাকে উদ্ধার করে বাড়ির লোকজনকে খবর দেয়। পরে পরিবারের লোকজন দিনাকে সরাসরি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে আটটায় দিকে অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানী ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।
দিনার চাচাতো ভাই মেহেদি হাসান জানান, দিনা একজন মেধাবী ছাত্রী। সামনেই তার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলো।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনসুর রহমান বলেন, ঘটনার পর থেকে পুলিশ এসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে। তবে পরিবারের সদস্যরা ভিকটিমকে নিয়ে হাসপাতালে অবস্থান করায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।
নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, ভিকটিমের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় নেয়া হচ্ছে। এসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

এইচএসসি পরীক্ষার্থী দিনা’র মুখে এসিড নিক্ষেপ বখাটেদের

আপডেট সময় : ০৪:২২:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ নভেম্বর ২০২১

নাটোর প্রতিনিধিঃ
নাটোরে দিনা খাতুন (১৯) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মুখে এসিড নিক্ষেপ করেছে বখাটেরা। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে।
রোববার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া বাজারে এই এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে।
দিনা খাতুন ডাঙ্গাপাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের মেয়ে। সে চলতি বছর রাজশাহী সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।
এসিড নিক্ষেপকারীদের মধ্যে একজনের নাম মুহিন। সে পাশ্ববর্তী দত্তপড়া এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। মুহিনের সহযোগিদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তাদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশের একাধিক টিম।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য বাড়ি থেকে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন পরীক্ষার্থী দিনা খাতুন। তাকে প্রায়ই বিরক্ত করত স্থানীয় বখাটে মুহিন ও তার সহযোগিরা। রোববার বিকেলে দিনা বাড়ির অদূরে প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার সময় বখাটে মুহিন তার দুই সহযোগি নিয়ে মোটরসাইকেল দিয়ে দিনার পথরোধ করে। এসময় দিনা দাঁড়ানোমাত্রই বোতলে থাকা এসিড নিক্ষেপ করে তার মুখ মন্ডল ঝলসে দেয় মুহিন। দিনা চিৎকার করলে স্থানীয়দের এগিয়ে আসতে দেখে তিন বখাটে ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায় । এসময় স্থানীয়রা দিনাকে উদ্ধার করে বাড়ির লোকজনকে খবর দেয়। পরে পরিবারের লোকজন দিনাকে সরাসরি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে আটটায় দিকে অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানী ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়।
দিনার চাচাতো ভাই মেহেদি হাসান জানান, দিনা একজন মেধাবী ছাত্রী। সামনেই তার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলো।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুনসুর রহমান বলেন, ঘটনার পর থেকে পুলিশ এসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে। তবে পরিবারের সদস্যরা ভিকটিমকে নিয়ে হাসপাতালে অবস্থান করায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।
নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, ভিকটিমের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় নেয়া হচ্ছে। এসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।