ঢাকা ০৬:২৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের বউ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:২৯:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ মার্চ ২০২২ ২০ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের বউ

আলমগীর হোসেন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছন এক পুলিশ সদস্যের বউকে। (২৯ মার্চ) দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় ঘটনাটি কেন্দ্র করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, সদর উপজেলাধীন আকচা তিন নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বালু মেম্বারের সাথে জমি নিয়ে বিরোধে জরিয়ে পরে স্থানিয় ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম।

এ নিয়ে সোমবার (২৯ মার্চ) বিকেলে দুই পক্ষের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। এক পর্যায়ে ব্যবসায়ী নজরুলকে মারপিট শুরু করে মেম্বার বালু। বিবাদের সময় ব্যবসায়ীর মেয়ে রেশমি আক্তার মুন্নি(২৪) তার পুলিশ সদস্য স্বামী আঃ রাজ্জাককে ফোন দিয়ে ঘটনার বিবরণ দেয়। বিষয়টি চোখে পরলে পুলিশের স্ত্রী রেশমাকে বেধড়ক মারপিট শুরু করে মেম্বার বালু। এসময় রেশমার ছোটো বোন নিশাদ আক্তার থামাতে গেলে তাকেও মারপিট শুরু করে সেই মেম্বার। পরে দুইবোনকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য শ্রী সন্তোষ রায় বালু বলেন, নজরুল আমার জমিতে সিমানা লাগিয়েছে। তার প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলাম। মহিলারাই অযথা এসেছে এখানে আমি তাদের মারিনি।

ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, বালু মেম্বার ও তার লোকজন আমার জমি দখল করতে এসেছিলো। আমি বাধা দেয়ায় আমাকে মারপিট করেছে। কিন্তু আমার মেয়েরা কোনো বাধা দেয়নি। সেখানে শুধু উপস্থিত ছিলো। আমার জামাইকে ফোন দেয়ায় আমার মেয়েদের তারা মেরেছে। আমি এর বিচার চাই।

আকচা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুব্রত কুমার বর্মন জানান, এর আগে দুই পক্ষকে একসাথে বসিয়ে মিমাংসা করে দিয়েছিলাম। দুই পক্ষ মেনে নিয়েছিলো। তবে পরবর্তিতে কেনো বিবাদের সৃষ্টি হলো তা জানা নেই।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে তখনি আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের বউ

আপডেট সময় : ১২:২৯:৫৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ মার্চ ২০২২

ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি পুলিশের বউ

আলমগীর হোসেন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপি সদস্যের মার খেয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছন এক পুলিশ সদস্যের বউকে। (২৯ মার্চ) দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় ঘটনাটি কেন্দ্র করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানাগেছে, সদর উপজেলাধীন আকচা তিন নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বালু মেম্বারের সাথে জমি নিয়ে বিরোধে জরিয়ে পরে স্থানিয় ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম।

এ নিয়ে সোমবার (২৯ মার্চ) বিকেলে দুই পক্ষের মধ্যে বিবাদ শুরু হয়। এক পর্যায়ে ব্যবসায়ী নজরুলকে মারপিট শুরু করে মেম্বার বালু। বিবাদের সময় ব্যবসায়ীর মেয়ে রেশমি আক্তার মুন্নি(২৪) তার পুলিশ সদস্য স্বামী আঃ রাজ্জাককে ফোন দিয়ে ঘটনার বিবরণ দেয়। বিষয়টি চোখে পরলে পুলিশের স্ত্রী রেশমাকে বেধড়ক মারপিট শুরু করে মেম্বার বালু। এসময় রেশমার ছোটো বোন নিশাদ আক্তার থামাতে গেলে তাকেও মারপিট শুরু করে সেই মেম্বার। পরে দুইবোনকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে স্থানীয়রা।

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য শ্রী সন্তোষ রায় বালু বলেন, নজরুল আমার জমিতে সিমানা লাগিয়েছে। তার প্রতিবাদ করতে গিয়েছিলাম। মহিলারাই অযথা এসেছে এখানে আমি তাদের মারিনি।

ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান, বালু মেম্বার ও তার লোকজন আমার জমি দখল করতে এসেছিলো। আমি বাধা দেয়ায় আমাকে মারপিট করেছে। কিন্তু আমার মেয়েরা কোনো বাধা দেয়নি। সেখানে শুধু উপস্থিত ছিলো। আমার জামাইকে ফোন দেয়ায় আমার মেয়েদের তারা মেরেছে। আমি এর বিচার চাই।

আকচা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুব্রত কুমার বর্মন জানান, এর আগে দুই পক্ষকে একসাথে বসিয়ে মিমাংসা করে দিয়েছিলাম। দুই পক্ষ মেনে নিয়েছিলো। তবে পরবর্তিতে কেনো বিবাদের সৃষ্টি হলো তা জানা নেই।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে তখনি আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।