ঢাকা ১০:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ অগাস্ট ২০২২ ৭ বার পড়া হয়েছে

মাইক্রোবাস চুরির ঘটনায় আটক আলতাব হোসেন

আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি!

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধিঃ
অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি! শুধুমাত্র অভাবের কারনে গত চারদিন আগে নাটোরের সিংড়া থেকে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব নামে এক পরিবহন ব্যবসায়ী বলে জানান সিংড়া থানার ওসি। চুরি হওয়া মাইক্রোবাস চারদিন পর উদ্ধারসহ মাইক্রেবাস চুরির সাথে জড়িত আলতাব হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে আলতাব কে আটকের পরে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও তথ্য অনুযায়ী নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে পুলিশ। আটক আলতাব হোসেন সিংড়া উপজেলার কলম পুন্ডরী গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি! নাটোরের সিংড়া থেকে চুরি হওয়া মাইক্রোবাস চারদিন পর উদ্ধারসহ মাইক্রেবাস চুরির সাথে জড়িত আলতাব নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে আলতাব কে আটকের পরে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও তথ্য অনুযায়ী নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে পুলিশ। আটক আলতাব হোসেন সিংড়া উপজেলার কলম পুন্ডরী গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে এবং সে একজন পরিবহন ব্যবসায়ী।
সিংড়া থেকে চুরি যাওয়া উদ্ধারকৃত মাইক্রোবাস

পুলিশ জানান, গত ১৯ আগষ্ট সিংড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে ব্যবসায়ী মোঃ চান মিয়ার মাইক্রেবাস চুরি হয়। অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে সিংড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেন মোঃ চাঁন মিয়া। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিংড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ মাইক্রেবাস উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে। প্রযুক্তির সহায়তায় জড়িত আলতাব হোসেনকে সনাক্ত করে পুলিশ। এক পর্যায়ে তার অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর সিংড়া থানার পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশের সহায়তায় মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে অভিযান চালিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর এলাকা থেকে আলতাব হোসেনকে আটক করে। পরে আলতাবের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করা হয়।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর-ই আলম সিদ্দীকি সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সিংড়া থেকে চুরি যাওয়া মাইক্রেবাসটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তার নিজের একটি মাইক্রেবাস ও ১টি ট্রাক রয়েছে। সে একজন পরিবহন ব্যবসায়ীও। কিন্তু ঋণের জর্জরিত হয়ে পড়ে আলতাব। ঋন পরিশোধ করতে না পারায় এবং পাওনাদারের চাপে সে চাঁন মিয়ার মাইক্রেবাসটি চুরি করে। ওসি আরও জানান, অভাবের কারনে চুরির পথ বেছে নেয় সে। এই চুরির সাথে আর অন্য কেউ জড়িত নেই বলেও পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি মূলক ঞ্জবানবন্দী দিয়েছে আলতাব হোসেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি!

আপডেট সময় : ০৯:০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ অগাস্ট ২০২২

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি!

সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধিঃ
অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি! শুধুমাত্র অভাবের কারনে গত চারদিন আগে নাটোরের সিংড়া থেকে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব নামে এক পরিবহন ব্যবসায়ী বলে জানান সিংড়া থানার ওসি। চুরি হওয়া মাইক্রোবাস চারদিন পর উদ্ধারসহ মাইক্রেবাস চুরির সাথে জড়িত আলতাব হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে আলতাব কে আটকের পরে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও তথ্য অনুযায়ী নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে পুলিশ। আটক আলতাব হোসেন সিংড়া উপজেলার কলম পুন্ডরী গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে।

অভাবের কারনে মাইক্রোবাস চুরি করে আলতাব- সিংড়ার ওসি! নাটোরের সিংড়া থেকে চুরি হওয়া মাইক্রোবাস চারদিন পর উদ্ধারসহ মাইক্রেবাস চুরির সাথে জড়িত আলতাব নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর থেকে আলতাব কে আটকের পরে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও তথ্য অনুযায়ী নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে পুলিশ। আটক আলতাব হোসেন সিংড়া উপজেলার কলম পুন্ডরী গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে এবং সে একজন পরিবহন ব্যবসায়ী।
সিংড়া থেকে চুরি যাওয়া উদ্ধারকৃত মাইক্রোবাস

পুলিশ জানান, গত ১৯ আগষ্ট সিংড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে ব্যবসায়ী মোঃ চান মিয়ার মাইক্রেবাস চুরি হয়। অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে সিংড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেন মোঃ চাঁন মিয়া। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিংড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ মাইক্রেবাস উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে। প্রযুক্তির সহায়তায় জড়িত আলতাব হোসেনকে সনাক্ত করে পুলিশ। এক পর্যায়ে তার অবস্থান নিশ্চিত হওয়ার পর সিংড়া থানার পুলিশ চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশের সহায়তায় মঙ্গলবার (২৩ আগষ্ট) বিকেলে অভিযান চালিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর এলাকা থেকে আলতাব হোসেনকে আটক করে। পরে আলতাবের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া এলাকা থেকে মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করা হয়।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর-ই আলম সিদ্দীকি সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সিংড়া থেকে চুরি যাওয়া মাইক্রেবাসটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। তার নিজের একটি মাইক্রেবাস ও ১টি ট্রাক রয়েছে। সে একজন পরিবহন ব্যবসায়ীও। কিন্তু ঋণের জর্জরিত হয়ে পড়ে আলতাব। ঋন পরিশোধ করতে না পারায় এবং পাওনাদারের চাপে সে চাঁন মিয়ার মাইক্রেবাসটি চুরি করে। ওসি আরও জানান, অভাবের কারনে চুরির পথ বেছে নেয় সে। এই চুরির সাথে আর অন্য কেউ জড়িত নেই বলেও পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তি মূলক ঞ্জবানবন্দী দিয়েছে আলতাব হোসেন।